1. [email protected] : Mohiuddin Lasker : Mohiuddin Lasker
  2. [email protected] : Prodip Kumar Sarkar : Prodip Kumar Sarkar
  • E-paper
  • English Version
  • শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:১২ পূর্বাহ্ন

মুখোমুখি হায়দরাবাদ-কলকাতা, শক্তিমত্তায় কার অবস্থান কোথায়?

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১
  • ৪২ বার পঠিত

ক্রীড়া ডেস্ক :: আইপিএলে খেলার অভিজ্ঞতা বেশ সমৃদ্ধ সাকিবের। তবে এবার তাকে নিয়ে আলোচনা একটু বেশিই। অনেক ঘটনা-অঘটন সঙ্গী করে আইপিএল খেলতে গেছেন সাকিব। নিজেও আত্মপ্রত্যয়ী তিনি। টাইগার অলরাউন্ডারকে ঘিরে বাড়তি প্রত্যাশা তার দল কলকাতা নাইট রাইডার্সের।

আজ রোববার (১১ এপ্রিল) নিজেদের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ও কলকাতা। শক্তিমত্তার দিক থেকে কার অবস্থান কোথায়?

আইপিএল ইতিহাসে আগের ১৩ আসরের মধ্যে মোটে দুবার শিরোপা ঘরে তুলেছে কেকেআর, দুই বারই ট্রফি জয়ে ভূমিকা ছিল সাকিবের। আইপিএলের গত মৌসুম হতশ্রী কেটেছে কলকাতার। টুর্নামেন্টের মাঝপথে নেতৃত্বে বদল এনেও শেষ চারে জায়গা হয়নি শাহরুখ খানের দলের। এবার শিরোপায় চোখ রেখে লড়াইয়ে নামতে চায় কলকাতা। এজন্য সাকিবকে আবার দলে টেনেছে তারা।

আজ এবারের টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম ম্যাচ খেলতে নামবে কেকেআর। এ ম্যাচে চোখ থাকবে বাংলাদেশি সমর্থকদের। সাকিব আল হাসান খেলবেন কি? হায়দরাবাদের বিপক্ষে ম্যাচে সাকিবের খেলা নিয়ে ধোঁয়াশা রেখেছে কলকাতার টিম ম্যানেজমেন্ট। সাকিবের পরিবর্তে দলের পুরনো সেনানী সুনিল নারিনের দিকেই পাল্লাটা একটু ভারি।

এবার শুরু থেকে অধিনায়কের দায়িত্ব সামলাবেন ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যান। কলকাতার ওপেনিংয়ে শুভমান গিলের সঙ্গী হবেন রাহুল ত্রিপাটি। ব্যাটিং অর্ডারের তিন নম্বরে খেলবেন নিতীশ রানা। এরপর একে একে অধিনায়ক মরগ্যান, দীনেশ কার্তিক ও আন্দ্রে রাসেল। সবশেষ আসরে রাসেল একেবারেই ছন্দে ছিলেন না। ৯ ইনিংসে তার গড় ছিল মোটে ১৩। তবুও শেষ দিকে দ্রুত গতিতে রান তুলতে রাসেলেই আস্থা কেকেআরের।

পেস বিভাগে প্যাট কামিন্স থাকায় সাকিব, নারিন আর লকি ফার্গুসনের মধ্যে একজন খেলবেন। যেহেতু চিপকের পিচ কিছুটা মস্থর, সে হিসেবে স্পিনারদের উপরেই আস্থা রাখবেন মরগ্যান। তবে সেখানে সাকিবের থেকে নারিনই এগিয়ে থাকবেন। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে মরগ্যান জানিয়েছেন, ‘চাপে পড়লে আমরা বল তুলে দিই নারিনের হাতে। এমন পরিস্থিতিতে সে আগেও সাফল্য পেয়েছে। কঠিন মুহূর্তে দলকে জেতানোর ক্ষমতা রাখে সে।’

এছাড়া দলে আসার লড়াইয়ে হরভজন সিং, কুলদীপ যাদবের সঙ্গে টেক্কা দিচ্ছেন গত মৌসুমে নজরকাড়া রহস্য স্পিনার বরুণ চক্রবর্তীও। পেস বিভাগে কামিন্সের সঙ্গে প্রসিদ্ধ কৃষ্ণার একাদশে থাকা প্রায় চূড়ান্ত। বাড়তি পেসার খেলালে শিবম মাভি ও কমলেশ নাগরকোটির মধ্যে একজন সুযোগ পাবেন।

এদিকে দ্বিতীয় শিরোপা জিততে না পারলেও শেষ কয়েক মৌসুম ধরে বেশ ছন্দে আছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ শিবির। ডেভিড ওয়ার্নারের নেতৃত্বে ব্যাটিং বিভাগ বেশ শক্তিশালী ২০১৬ চ্যাম্পিয়নদের। ওয়ার্নারের সঙ্গে জনি বেয়ারস্টোর ওপেনিং জুটি প্রতিপক্ষ দলের মাথা ব্যথার কারণ। মণীশ পাণ্ডে, কেন উইলিয়ামসন, বিজয় শঙ্কর, কেদার যাদব, প্রিয়ম গর্গরা বাড়াচ্ছেন ব্যাটিং গভীরতা। স্লগ ওভারে বড় শটস খেলায় নাম কামিয়েছেন তরুণ আব্দুল সামাদ।

চোট কাটিয়ে ফিরেছেন ভুবনেশ্বর কুমার। পেস বিভাগে তার সঙ্গী হিসেবে রয়েছেন বাঁহাতি পেসার নটরাজন। লেগ স্পিনার রশিদ খান একাই ম্যাচের ভাগ্য ঘুরিয়ে দিতে পারেন। সঙ্গে থাকবেন মোহাম্মদ নবী। যদিও দুই দলের মুখোমুখি পরিসংখ্যান কেকেআরকেই এগিয়ে রাখছে। ওয়ার্নারদের বিপক্ষে সবশেষ মৌসুমে দুটি ম্যাচেই জিতেছিল নাইটরা। মুখোমুখি দেখায় ১২-৭ ব্যবধানে এগিয়ে কলকাতা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..