1. [email protected] : Mohiuddin Lasker : Mohiuddin Lasker
  2. [email protected] : Prodip Kumar Sarkar : Prodip Kumar Sarkar
  • E-paper
  • English Version
  • মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৫:২৫ পূর্বাহ্ন

রমজানে সবজির বাজারে আগুন

  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২১
  • ৭৮ বার পঠিত

জুড়ী প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজার জেলার জুড়ীতে রমজানের শুরুতেই সবজির বাজারে আগুন। রমজান মাসকে পুঁজি করে কিছু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী বিভিন্ন অজুহাতে সবজির দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন কয়েকগুণ। চলমান সর্বাত্মক লকডাউন ও রমজানে সবজির দাম কয়েকগুণ বাড়ায় সাধারণ ক্রেতারা পড়েছে চরম দুর্ভোগে।

পবিত্র রমজান শুরু হয়েছে গত বুধবার। রমজান মাসকে টার্গেট করে সব ধরনের সবজির দাম বেড়েছে কেজি প্রতি দশ থেকে ৫০ টাকা পর্যন্ত। বিশেষ করে শসা ও বেগুনের দাম কয়েকগুণ বৃদ্ধি পাওয়ার পাশাপাশি কাঁচা মরিচের দামও বেশ চড়া।করোনার প্রকোপ ও রমজানে প্রচুর গরম থাকায় লেবুর দাম বেড়েছে অবিশ্বাস্যভাবে। এক সপ্তাহ আগে যেখানে প্রতি হালি লেবু বিক্রি হয়েছে ২০ টাকায় এখন প্রতি হালি লেবু বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৬০ টাকায়।

জুড়ী বাজারের সবজি ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রতি কেজি কাঁচা মরিচ বর্তমানে বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকায়। যা গত সপ্তাহে কেজি প্রতি দাম ছিল ৪০ থেকে ৫০ টাকা। গত সপ্তাহে বেগুন যেখানে প্রতি কেজি বিক্রি হয়েছিল ২৫ থেকে ৩০ টাকা সেই বেগুন এখন বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকা প্রতি কেজি।

ব্যবসায়ীরা আরোও জানান, শসা ৩০ টাকা থেকে বেড়ে ৭০ টাকা, গাজর ৩০ টাকা থেকে বেড়ে ৫০ টাকা, টমেটো ১৫ টাকা থেকে বেড়ে এখন বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা। এছাড়াও ঝিঙ্গা, ঢ্যাড়স, বরবটি, শিম, করলাসহ বিভিন্ন ধরনের শাকের দামও বেড়েছে ১০ থেকে ২০ টাকা।

পোস্ট অফিস রোডের সবজি ব্যবসায়ী ছাবিত আহমেদ বলেন, রমজান মাস আসলেই পাইকারি আড়তে কিছু কিছু সবজির দাম বেড়ে যায়। আমরা বেশি দাম দিয়ে কিনি বলে বেশি দামে বিক্রি করি। তবে বর্তমানে রমজানে সবজির দাম বেশি বেড়ে যাওয়ায় ক্রেতাদের সাথে আমাদের সবজির দাম নিয়ে অনেক ঝামেলা হয়।

রমজান ও লকডাউনে সবজির দাম বেড়ে যাওয়ায় সাধারণ ক্রেতারা পড়েছেন বিপাকে। বিশেষ করে সাধারন খেটে খেটে খাওয়া মানুষজনের দুর্ভোগের যেন শেষ নেই। সবজিসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম সহনীয় রাখতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সাধারণ ক্রেতারা।

রিকশাচালক ফারুক আহমেদ বলেন, লকডাউনে আমাদের আয় রোজগার নেই বললেই চলে। এরমধ্যে আবার সব ধরনের সবজির দাম কয়েকগুণ বেড়েছে। আমাদের এখন অনেকটা না খেয়েই থাকতে হবে।

সরেজমিনে সবজি ক্রয়ের সময় ক্রেতা কামরুল ইসলামের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন, বাজারে সবজির কোন কমতি নেই। কিন্তু দাম অনেক চড়া। রমজান ও লকডাউন কে কেন্দ্র করে অনেক ব্যবসায়ীরা ইচ্ছামত পণ্যের দাম বাড়াচ্ছেন।সরকারের যথাযথ কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ ছাড়া সবজির দাম কমার কোন সম্ভাবনা নেই।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আল-ইমরান রুহুল ইসলাম বলেন, সবজির নির্দিষ্ট দাম না থাকায় বাজারে অনেকটা হেরফের হচ্ছে। আমরা বাজার মনিটরিং করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..